বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২১

মালাধর বসুর ভাগবতের অনুবাদ গ্রন্থ টির নাম কী ? উক্ত গ্রন্থ রচনায় তার কৃতিত্ব আলোচনা করো প্রশ্নোত্তর

 

মালাধর বসুর ভাগবতের অনুবাদ গ্রন্থ টির নাম কী উক্ত গ্রন্থ রচনায় তার কৃতিত্ব আলোচনা করো প্রশ্নোত্তর বাংলা অনার্স bengali honours maladhor bosur bhagvater onubad gronthotir nam ki krititto alochona Koro


               প্রশ্নের মান - ৫/৬



প্রশ্ন: মালাধর বসুর ভাগবতের অনুবাদ গ্রন্থ টির নাম কী ? উক্ত গ্রন্থ রচনায় তার কৃতিত্ব আলোচনা করো ?



উত্তর:- মালাধর বসুর ভাগবতের অনুবাদ গ্রন্থ টির নাম " শ্রীকৃষ্ণবিজয় " ।



[   ] রামায়ণ ও মহাভারত মহাকাব্য । কিন্তু মধ্য যুগে একখানি পুরাণের ও অনুবাদ হয়েছিল । এটি শ্রীমদ্ভাগবত পুরাণ । ভাগবতের কিয়দংশের প্রথম অনুবাদ কুলীন গ্রামবাসী মালাধর বসু । তিনি প্রাক - চৈতন্যে যুগের এক বিখ্যাত কবি । ভাগবতকে বৈষ্ণব সমাজ ও সম্প্রদায়ের উপনিষদ বা সর্বশ্রেষ্ট গ্রন্থ বলা হয় । মালাধর বসু সেই গ্রন্থের অংশ বিশেষ সরল বাংলায় অনুবাদ করে এদেশে বৈষ্ণব মতের প্রথম সূচনা করেন । 



[   ] ভাগবতে দ্বাদশ টি পর্ব থাকলেও মালাধর বসু শুধু দুই দশম ও একাদশ পর্বের সংক্ষিপ্ত অনুবাদ করে ' শ্রীকৃষ্ণবিজয় ' বা ' শ্রীকৃষ্ণমঙ্গল ' রচনা করেন ।



[      ] মালাধর বসুর " শ্রীকৃষ্ণবিজয় " বিখ্যাত গ্রন্থ হলেও বৈষ্ণব সমাজের বাইরে এর বিশেষ প্রচার ছিল বলে মনে হয় না । কারণ কৃত্তিবাসী রামায়ণ ও কালীদাসী মহাভারতের যেমন অসংখ্য পুঁথি পাওয়া যায় " শ্রীকৃষ্ণবিজয় " এর ' বিজয় ' এর অর্থ মনে হয় শ্রীকৃষ্ণের গৌরব কাহিনী বা শোভাযাত্রা বা মঙ্গল কথা । মালাধর বসুর অনুবাদ করা দুটি পর্বের দশম পর্বে কৃষ্ণ জন্ম থেকে দ্বারকালীলা পযন্ত বর্ণিত হয়েছে । একাদশ পর্বে কাহিনীর অংশ যত্র সামান্য কৃষ্ণের অনুত্যাগ ও যদুবংশ ধ্বংস এর প্রধান ঘটনা । এতে নানা তত্ত্ব কথা , ধর্ম তত্ত্ব , আলোচনার মারফত বর্ণিত হয়েছে । তিনি জানতেন নানা তত্ত্ব ও তথ্য ভারে মন্থর গোটা ভাগবত জন সাধারণের রুচিকর হব না । তাই তিনি ভাগবতের দশম ও একাদশ পর্বের সমস্ত বক্তব্য কে যথাসম্ভব সংক্ষেপে অনুবাদ করে যথেষ্ট কৃতিত্ব অর্জন করেছেন ।




কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন