সোমবার, ২৩ আগস্ট, ২০২১

ভালোবাসা এবং মরণ এই দুটিকেই পৃথিবীময় দেখিলাম ব্যাখ্যা করো প্রশ্নোত্তর

 

বাংলা অনার্স সাম্মানিক ভালোবাসা এবং মরণ এই দুটিকেই পৃথিবীময় দেখিলাম ব্যাখ্যা করো প্রশ্নোত্তর Bengali honours bhalobasha abong moron ai dutikei prithibimoi dekhilam bakha koro questions answer



                       প্রশ্নের মান : ৫/৬




প্রশ্ন: " ভালোবাসা এবং মরণ এই দুটিকেই পৃথিবীময় দেখিলাম ।" ব্যাখ্যা করো 


উত্তর:- রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের " কঙ্কাল " গল্পের ৩৪তম অনুচ্ছেদের অন্তিম বাক্য উদ্ধতি । এ খানে অশরীরী সুন্দরী ধীরে ধীরে প্রেমের জগৎ থেকে মৃত্যুর জগৎ এ ভাবে পৌঁছালো তারই একটা কাহিনীর অতিপ্রাকৃত ভাবনায় পরিবেশিত করা হয়েছে । বক্তব্যটির মধ্যে অশরীরী সুন্দরী তাঁর জীবনের ট্রাজেডিকে মৃত্যুর পর ট্রাজেডি বলে মনে করে না তারই ইঙ্গিত দিয়েছে ।



[      ] এর একটা নীদিষ্ট কারণ আছে । প্রেম ভালোবাসার প্রতি বিরাগ হয়ে বাড়ীতে যে ডাক্তার খানা আছে , সেখান থেকেই সে জ্ঞান লাভ করেছে কোন বিষে মামুষের মৃত্যু হয় । এ যেন সুন্দর। কুৎসিত জীবন মৃত্যুর দ্বন্দ্বে ক্ষতবিক্ষত না হলে কঙ্কাল থেকে রূপসীতে এবং রূপসী থেকে কঙ্কালে উত্তরণ হওয়া সম্ভব ছিল না । এভাবেই ভালোবাসার বিষময় ফল লাভ করেছিল সেই সুন্দরী ।



[      ] এর অশরীরী সুন্দরী তাঁর সৌন্দর্য যেখানে অর্থের কাছে পরাভূত তার প্রেম যেখানে নিষ্ঠুর ভাবে প্রবঞ্চিত যেখানে জীবনের যে কোনো মূল্য নেই এ ধ্রুব সত্য জ্ঞানই তাঁকে ওই পথে এগিয়ে দিয়েছে । তাই ডাক্তারের প্রবঞ্চনার পূর্বেই মেয়েটি ডাক্তারের কাছে  বিয়ের কথা জেনে নিয়েছে যে কোন বিষে মানুষের মৃত্যু হয় । সেটা অবশ্যই ডাক্তারকে হত্যা করার জন্য নয় আত্মহত্যার জন্য । কিন্তু এই পৃথিবীতে মেয়েটি ভালোবাসার প্রতি আস্থা হারিয়ে যখন সুখী হবার কোনো পথ খুঁজে পাচ্ছিল না তখন সে চরম পথটিই বেছে নেয় । তাই বিয়ের কথা ডাক্তারের সঙ্গে আলোচনা করতে করতে মৃত্যু যেন তাঁর কাছে অত্যন্ত পরিচিতের মতো হয়ে উঠেছিল । সুতরাং ভালোবাসা এবং মরণ পূর্বেই অশরীরী সুন্দরী যে ভোগ করেছিল তাতে কোনো সন্দেহ নেই ।



কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন