রবিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২১

সৎ প্রসঙ্গ প্রবন্ধের লেখক হিন্দুমুসলমানের বিবাদের কোন কারণ নির্দেশ করেছেন ? সেই কারণ কতদূর সঙ্গত প্রশ্নোত্তর

 

বাংলা অনার্স সাম্মানিক bengali honours সৎ প্রসঙ্গ প্রবন্ধের লেখক হিন্দুমুসলমানের বিবাদের কোন কারণ নির্দেশ করেছেন সেই কারণ কতদূর সঙ্গত প্রশ্নোত্তর sott prosongo probondher lekhok hindu musolmaner bibader kon karon nirdesh korechen sei karon kotodur songotto questions answer

উত্তর:- “ সৎ প্রসঙ্গ ”  প্রবন্ধের লেখক মীর মশারফ হোসেন হিন্দু-মুসলমানের বিবাদের কোনো সঙ্গত কারণ খুঁজে পাননি । তবু বিবাদ হয় এবং সেই বিপদের কথা ফলাও করে আলোচনা করা হয় সর্বত্র । লেখক বিবাদের যে  কারণ অনুমান করেছেন তাহলো জাতিগত ঈর্শ্বা । অকারনেই এই দুই জাতি পরস্পরকে হিংসা করে । এক জাতি যদি কলা পাতার একটা দিককে পরিশুদ্ধ জ্ঞান করে তো অন্য জাতি সেই দিকটাকেই ঘৃণা করে । মুসলমানের পবিত্র “আজান” ধ্বনি হিন্দুর কানে বিষ ঢালে ,  আবার হিন্দু উপাসনার শঙ্খ , ঘন্টা , কাঁসরের ধ্বনি যেন মুসলমানের কর্নে শলাকা বিদ্ধ করে বধির করে তোলে ।




[     ] বিবাদে এই কারণ খুব গুরুতর নয় । এসব হল মতিভ্রম । মহৎ হিন্দু-মুসলমানের দ্বারা এই তুচ্ছ , অসঙ্গত কারণে কখনো বিবাদ ঘটে না । ঈর্স্বা প্রতিযোগিতার মানসিকতা থেকেও জন্মাতে পারে । তবে প্রতিযোগিতা হয় সমকক্ষের মধ্যেই । মুসলমান কখনোই হিন্দুর সমকক্ষ নয় কোন দিক থেকেই । তাই হিন্দুকে ঈশ্বা করাও মুসলমানের পক্ষে অনুচিত এবং অসঙ্গত  ।



কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন