বুধবার, ৭ জুলাই, ২০২১

" আমার ভয় করে , আমি মরিতে পারিব না । শৈবলিনী ডুবিল না ফিরিল । " শৈবলিনী কোথায় কী ভাবে মরতে গিয়েছিল ? কেন ? আলোচনা করো ।

 

বাংলা অনার্স আমার ভয় করে আমি মরিতে পারিব না শৈবলিনী ডুবিল না ফিরিল শৈবলিনী কোথায় কী ভাবে মরতে গিয়েছিল কেন আলোচনা করো shoibolini


                       প্রশ্নের মান - ৫/৬



প্রশ্ন: " আমার ভয় করে , আমি মরিতে পারিব না । শৈবলিনী ডুবিল না ফিরিল । " শৈবলিনী কোথায় কী ভাবে মরতে গিয়েছিল ? কেন ? আলোচনা করো ।



উত্তর:- শৈবলিনী গঙ্গায় প্রতাপের সঙ্গে ডুবে মরতে হয়েছিল ।


শৈবলিনী সাত আট বছর বয়সেই ষোল বছরের প্রতাপকে ভালোবেসে ফেলেছিল । সে ভালোবাসা এতটাই গভীর ছিল যে , তারা বুঝতে পারছিল , পরস্পরকে ছেড়ে তারা বাঁচতে পারবে না । কিন্তু তাদের মধ্যে বিবাহ হওয়া সম্ভব নয় । কারণ , তারা দূর সম্পর্কের জ্ঞাতি ভাই বোন । আমাদের সমাজে জ্ঞাতি সম্পর্ক থাকলে তাদের মধ্যে বিবাহ সম্পর্ক হতে পারে না । এটা ষোল বছরের প্রতাপ বুঝেছিল এবং আট বছরের শৈবলিনীকেও বুঝিয়েছিল । বিবাহ না হলে তারা এক সঙ্গে থাকতে পারবে না । পরস্পরের থেকে ছিন্ন হয়ে যাবে । সেই বিচ্ছেদ তারা সইতে পারবে না । তাই প্রতাপ আর শৈবলিনী নিভৃতে অনেক পরামর্শ করে সিদ্ধান্ত নেয় , তারা এক সঙ্গে ডুবে মরবে । সেই সিদ্ধান্ত মতোই তারা একদিন স্নানের সময় সাঁতার দিয়ে মাঝ গঙ্গায় পৌঁছে যায় । দৃঢ সংকল্প প্রতাপ সেখানে সত্যিই ডুবে যায় । কিন্তু বালিকা শৈবলিনী হটাৎ ভয় পেয়ে ডুবতে না পেরে সাঁতার দিয়ে কূলে ফিরে আসে । প্রতাপও  অবশ্য মরতে পারেনি চন্দ্রশেখর তাকে তুলে এনে বাঁচান ।



কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন