মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২১

রস গল্পের ফুলবানু চরিত্রটি আলোচনা করো । সে প্রথম স্বামীকে ছেড়ে আসে কেন প্রশ্নোত্তর

 

বাংলা অনার্স সাম্মানিক bengali honours রস গল্পের ফুলবানু চরিত্রটি আলোচনা করো সে প্রথম স্বামীকে ছেড়ে আসে কেন প্রশ্নোত্তর ros golper phulbanu choritro ti alochona koro se prothom swamike chere ase keno questions answer

উত্তর:- নরেন্দ্রনাথ মিত্রের “রস” গল্পের একটি বিশিষ্ট নারী চরিত্র ফুলবানু । সে বেশ রূপবতী ,বয়স উনিশ , স্বাস্থ্যবতীও । সেই জন্যই মোতালেফ তাকে পাবার জন্য ব্যাকুল হয়ে উঠেছে । প্রথম স্বামীর কাছ থেকে তালাক নিয়ে সে বাপের বাড়ীতেই ছিল । বাবা এলেম শেখ এই তালাক প্রাপ্ত মেয়ের জন্যেও পাঁচ কুড়ি টাকা কন্যাপন দাবি করে । মোতালেফ তাতেই রাজি হয় এবং সময় নেয় । ফুলবানুও মোতালেফকে পছন্দ করেছিল সুন্দর চেহারার স্বাস্থ্যবান ও কর্মঠ বলে । তাই কন্যাপনের টাকা না থাকায় হতাশ হয়ে মোতালেফ যখন ফিরে যাছিল তখন ফুলবানু তাকে ডেকে আশা যোগায় । টাকা  জোগাড়ের উৎসাহ যোগায় । তবে একথাও বলে যেন আকাশ কুসুম না করে জমি জায়গা না বেঁচে । এতেই বোঝা যায় ফুলবানু যথেষ্ট চালাক চতুর মেয়ে ।


[     ] ফুলবানু সুন্দরী হলেও স্বাস্থ্য সচেতন হলেও মাজুবিবির মতো গুণবতী ও আন্তরিকতা ছিল না । কাজকর্মে নিষ্ঠা ছিলনা । গুড় তৈরির ব্যাপারে তার কোন দক্ষতা ছিল না । কাজেই যত্ন করে শিখবার মনেও ছিল না । যে গুঁড় সে বানাত তা বাজারে বিক্রি হতো না । মতালোফের বদনাম ও লোকসান বাড়তে লাগল । একথা বললেও ফুলবানু গ্রাহ্য করে না । আয় করবার পথটা কে নিয়ে সে হেলা ফেলা করে । একদিন গুঁড় পুড়ে যাওয়ায় ধৈযচূর্ত মোতালেফ কঞ্চির কয়েক ঘা বসিয়ে দেয় তাঁর পিঠে । ফুলবাবু তালাক নিয়ে বাপের বাড়ী চলে যেতে চায় । এলেম শেখই তাকে বোঝায় বারবার ঘর বদল ভালো দেখায় না । মোতালেফ ফুলবানুর প্রণয় রস ক মাসের ব্যবধানে শুকিয়ে কাঠ ।


[     ] গল্পে ফুলবানুর পরিণতি দেখানো হয়নি । চরিত্রটি আসলে মোতালেদের চরিত্র বিকাশে সহায়ক হয়েছে । আলাদাভাবে আমাদের মন কাড়তে পারেনি । তুলনায় মাজু চরিত্র মনে দাগ কাটে । নায়ক মোতালেফ কে ছলচাতুরীর আশ্রয় নিতে বিশ্বাসঘাতক হবার জন্য চালিত করতে ফুলবানুর বেশ একটা ভূমিকা আছে । আর কোনো ভূমিকা নেই । তাই ফুলবানুর প্রতি পাঠকের সহানুভূতি তেমন জাগে না ।




কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন